sibl

সোস্যাল ইসলামী ব্যাংকের (এসআইবিএল) উদ্যোক্তা আব্দুল আউয়াল পাটোয়ারী কোম্পানিটি ছেড়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এ জন্য তিনি নিজের কাছে থাকা সব শেয়ার বিক্রি করে দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। সোমবার দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) মাধ্যমে তিনি এ ঘোষণা দেন।

আগ্রণী ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়ে তা পরিশোধ না করায় মামলার শিকার হওয়া আব্দুল আউয়ালের কাছে সোস্যাল ইসলামী ব্যাংকের ১ কোটি ৬২ লাখ ৫৫ হাজার ১৩৭টি শেয়ার রয়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ এবং চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) ব্লক মার্কেটে বিদ্যমান বাজার দরে আগামী ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে তিনি এ শেয়ার বিক্রি করে দেবেন।
আবদুল আউয়াল পাটোয়ারী ২০১৬ সালে সোস্যাল ইসলামী ব্যাংকের রিস্ক ম্যানেজমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। তিনি পাটোয়ারী কোল্ড স্টোরেজ লিমিটেড, পাটোয়ারী পটেটো ফ্লেক্স লিমিটেড ও গ্রিনটেক গ্রিন হাউস বাংলাদেশ লিমিটেডের চেয়ারম্যান, ফয়সাল শপিং কমপ্লেক্স লিমিটেড ও ফয়সাল শিপিং লাইনসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং ফয়সাল ট্রেডার্সের স্বত্বাধিকারী।

এসআইবিএলের পরিচালক থাকা অবস্থায় আব্দুল আউয়াল পাটোয়ারীর বিরুদ্ধে ২০১৫ সালে মামলা করে অগ্রণী ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। অগ্রণী ব্যাংক থেকে নেয়া ১২১ কোটি টাকার ঋণ পরিশোধ না করায় অর্থ ঋণ আদালতে ওই মামলা করা হয়।

সে সময় বাংলাদেশ ব্যাংকের এক প্রতিবেদনে উঠে আসে, আব্দুল আউয়াল পাটোয়ারী পটেটো ফ্লেক্সের অনুকূলে ২০০৩ সালে অগ্রণী ব্যাংক থেকে ২৮ কোটি টাকার প্রকল্প ঋণ গ্রহণ করেন। এ ছাড়া ২০০৪ সালে ইএফ ফান্ড বাবদ ৪ কোটি ও ২০০৬ সালে আরও সাড়ে ৫ কোটি টাকার ঋণ গ্রহণ করেন।

দীর্ঘদিন ধরে ঋণের অর্থ পরিশোধ না করায় সুদে-আসলে তার কাছে পাওনা অর্থের পরিমাণ দাঁড়ায় ১২২ কোটি টাকা। অর্থ আদায়ে ২০১৪ সালের নভেম্বর তাকে নোটিশ পাঠায় ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। নোটিশে সুরাহা না হওয়ায় অর্থ ঋণ আদালতে তার বিরুদ্ধে মামলা করে অগ্রণী ব্যাংক।