dse-cse

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গত সপ্তাহে (২-৫ জুলাই) ৮২ কোটি ৪৯ লাখ ৯০ হাজার টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যা আগের সপ্তাহের তুলনায় ২৮৬ কোটি ৫৮ লাখ ৩০ হাজার টাকা কম। আগের সপ্তাহে ব্লক মার্কেটে ৩৬৯ কোটি আট লাখ ২০ হাজার টাকার লেনদেন হয়।

গত সপ্তাহে ব্লক মার্কেটের লেনদেনে অংশ নেয় ২৫ প্রতিষ্ঠান। এর মধ্যে ২১ কোম্পানি এবং বাকি চারটি মিউচ্যুয়াল ফান্ড। মিউচ্যুয়াল ফান্ড চারটির মধ্যে রয়েছে- গ্রামীণ ওয়ান : স্কিম টু, এনএলআই ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড, ‘রিলায়েন্স ওয়ান’ দ্যা ফার্স্ট স্কিম অব রিলায়েন্স ইনস্যুরেন্স মিউচ্যুয়াল ফান্ড এবং এইবিএল ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড।
আর কোম্পানিগুলো হলো- বসুন্ধরা পেপার মিলস, হামিদ ফেব্রিক্স, ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন, কুইন সাউথ টেক্সটাইল, একমি ল্যাবরেটরিজ, ব্রিটিশ আমেরিকান ট্যোবাকো, বিডি গ্রামীণ ফোন, কেডিএস এক্সেসরিজ, অটোকার্স, মার্কেন্টাইল ইনস্যুরেন্স, রেনেটা, অলিম্পিক, প্রাইম টেক্সটাইল, স্টাইল ক্রাফট, বেক্সিমকো, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল, আইডিএলসি, স্কয়ার ফার্মা, এইচআর টেক্সটাইল, লিগ্যাছি ফুটওয়্যার এবং অলিম্পিক এক্সেসরিজ।

এরমধ্যে টাকার অঙ্কে সব থেকে বেশি শেয়ার লেনদেন হয়েছে ব্রিটিশ আমেরিকান ট্যোবাকোর। কোম্পানিটির ৩৬ কোটি ৪৯ লাখ ৬০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা ইউনাইটেড পাওয়ারের জেনারেশনের ১৮ কোটি ১৩ লাখ ৯০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ৯ কোটি ৬৩ লাখ ৯০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে গ্রামীণ ফোন।

এ ছাড়া বিডি অটোকারের তিন কোটি ৯৭ লাখ ৩০ হাজার টাকা, লিগ্যাসি ফুটওয়্যারের তিন কোটি ২৭ লাখ ২০ হাজার টাকা, একমি ল্যাবরেটরিজের তিন কোটি টাকা, আইডিএলসির দুই কোটি ৯২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

৫০ লাখ টাকার ওপরে শেয়ার লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলোর মধ্যে স্টাইল ক্রাফটের ৭৬ লাখ ৭০ হাজার টাকা, বেক্সিমকোর ৭০ লাখ ৪০ হাজার টাকা এবং মার্কেন্টাইল ইনস্যুরেন্সের ৫৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

বাকি কোম্পানিগুলোর মধ্যে অলিম্পিক এক্সেসরিজের ৩৭ লাখ ৮০ হাজার টাকা, অলিম্পিকের ৩৫ লখ ৮০ হাজার টাকা, কেডিএস এক্সেসরিজের ২৯ লাখ ৩০ হাজার টাকা, স্কয়ার ফার্মার ২৮ লাখ ৪০ হাজার টাকা, এইচআর টেক্সটাইলের ২০ লাখ টাকা, রেনেটার ১৮ লাখ ৯০ হাজার টাকা, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইলের ১৫ লাখ ৩০ হাজার টাকা, হামিদ ফেব্রিক্সের ১২ লাখ টাকা, কুইন সাউথ টেক্সটাইলের ১১ লাখ ২০ হাজার টাকা, প্রাইম টেক্সটাইলের সাত লাখ ৭০ হাজার টাকা এবং বসুন্ধরা পেপার মিলসের পাঁচ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

আর লেনদেন অংশ নেয়া মিউচ্যুয়াল ফান্ডগুলোর মধ্যে- গ্রামীণ ওয়ান : স্কিম টু’র ২৫ লাখ ২০ হাজার টাকা, এনএলআই ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ২১ লাখ ৯০ হাজার টাকা, এসইবিএল ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ২০ লাখ ৬০ হাজার টাকা, ‘রিলায়েন্স ওয়ান’ দ্যা ফার্স্ট স্কিম অব রিলায়েন্স ইনস্যুরেন্স মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ১৫ লাখ ৮০ হাজার টাকার ইউনিট লেনদেন হয়েছে।