usa

ইরানের বিপ্লবী রক্ষীবাহিনী বলেছে, যুক্তরাষ্ট্র যদি ইরানের তেল বিক্রি বন্ধ করে দেয়, তাহলে তারাও তেলের আঞ্চলিক রফতানির পথ বন্ধ করে দেবে। এ ব্যাপারে সরকারের নীতিগত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে প্রস্তুত রয়েছে বিপ্লবী বাহিনী।

বুধবার দেশটির বিপ্লবী বাহিনীর এক জ্যেষ্ঠ কমান্ডার এ হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। এর আগে মঙ্গলবার ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, যদি ওয়াশিংটন সব দেশকে বলপ্রয়োগের মাধ্যমে ইরানি তেল কেনা বন্ধ করার পথে এগিয়ে যায় তাহলে প্রতিবেশি দেশগুলো থেকে তেলের রফতানির পথ বন্ধ করে দেবেন তিনি।
বিপ্লবী রক্ষীবাহিনীর মেজর জেনারেল কাশেম সোলেইমানি রুহানির এই মন্তব্যের প্রশংসা করে বলেছেন, প্রয়োজনে এ ধরনের নীতি বাস্তবায়নের জন্য প্রস্তুত রয়েছেন তিনি।

কীভাবে প্রতিবেশি দেশগুলোর তেলের রফতানি ইরান বন্ধ করে দেবে সেব্যাপারে বিস্তারিত কোনো তথ্য দেননি হাসান রুহানি। তবে অতীতে ইরানের সরকারি কর্মকর্তারা তেলবাহী জাহাজ পরিবহনের অন্যতম প্রধান রুট হরমুজ প্রণালী বন্ধ করে দেয়ার হুমকি দিয়েছিলেন।

এদিকে, ইরান হরমুজ প্রণালী দিয়ে তেলের পরিবহন বন্ধ করে দেয়ার হুমকির পর মার্কিন সামরিক বাহিনী উপসাগরীয় এই জলপথ সচল রাখার অঙ্গীকার করেছে।

মার্কিন সামরিক বাহিনীর সেন্ট্রাল কমান্ডের মুখপাত্র ক্যাপ্টেন বিল আরবান বলেছেন, ‘তেলবাহী ট্যাংকারের চলাচল নিশ্চিত রাখতে মার্কিন নৌবাহিনী ও আঞ্চলিক মিত্ররা প্রস্তুত রয়েছে।

মঙ্গলবার ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি বলেন, আমেরিকানরা দাবি করেছে যে, তারা ইরানের তেল রফতানি বন্ধ করে দিতে চায়। তারা এই বক্তব্যের অর্থ বুঝতে পারছে না। আঞ্চলিক তেল রফতানি অব্যাহত থাকবে আর ইরানের তেল রফতানি হবে না এমন হওয়ার কোনো সুযোগ নেই।