Bangladesh cricketer Imrul Kayes (L) plays a shot as Sri Lankan wicketkeeper Niroshan Dickwella (R) watches the ball go past a fielder during the second day of the second and final Test cricket match between Sri Lanka and Bangladesh at The P. Sara Oval Cricket Stadium in Colombo on March 16, 2017. / AFP PHOTO / Ishara S. KODIKARA        (Photo credit should read ISHARA S. KODIKARA/AFP/Getty Images)

কঠিন ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের শুরুতেই বড় ধরনের লজ্জায় পড়ল বাংলাদেশ। অ্যান্টিগায় ক্যারিবীয় পেসারদের বোলিং তোপে প্রথম ইনিংসে মাত্র ৪৩ রানেই গুটিয়ে গেছে সাকিব আল হাসানের দল।

বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা যেমন ব্যাটিং করছিলেন, তাতে টেস্ট ইতিহাসেরই সর্বনিম্ন দলীয় সংগ্রহের লজ্জায় পড়ার শঙ্কা ভর করেছিল। তবে শেষপর্যন্ত নিউজিল্যান্ডের ২৬ রানে অলআউট হওয়ার রেকর্ডটি এড়িয়েছে তারা। তবে এড়াতে পারেনি দেশের সর্বনিম্ন দলীয় সংগ্রহের লজ্জা।
২০০৭ সালের ৩ জুলাই কলম্বোতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মাত্র ৬২ রানে অলআউট হয়েছিল বাংলাদেশ। এটিই ছিল এতদিন পর্যন্ত টেস্টে টাইগারদের সর্বনিম্ন দলীয় সংগ্রহ। এবার সেটাকে পেছনে ফেলল সাকিবের দল।

ক্যারিবীয় পেসারদের বোলিং তোপে শুরু থেকেই হাস-ফাঁস করছিলেন বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা। কেমার রোচ প্রথম ঘণ্টাতেই পাঁচ উইকেট তুলে নেন। তাতে ১৮ রানের মধ্যে ৫ উইকেট হারিয়ে বসে টাইগাররা।

তামিম ইকবালকে দিয়ে শুরু। মাত্র ৪ রানেই কেমার রোচের শিকার হয়ে ফেরেন চার হাজারি ক্লাবের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা বাংলাদেশি ওপেনার। এরপর একে একে তার দেখানো পথ ধরেছেন মুমিনুল হক (১), মুশফিকুর রহিম (০), সাকিব আল হাসান (০) আর মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (০)। সব কটি উইকেটই নেন ক্যারিবীয় পেসার রোচ। ৬ রানেই তিনি তুলে নেন ৫ উইকেট।

সতীর্থদের এই আসা যাওয়ার মাঝে একটা প্রান্ত ধরে ছিলেন লিটন দাস। তিনিও অবশ্য বড় কিছু করতে পারেননি। ২৫ রান করে মিগুয়েল কামিন্সকে তুলে মারতে গিয়ে ক্যাচ হয়েছেন উইকেটরক্ষক এই ব্যাটসম্যান। এরপর নুরুল হাসান (৪) আর মেহেদী হাসান মিরাজের (১) উইকেটও নেন এই পেসার। সবমিলিয়ে ১৮.৪ ওভারেই শেষ বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস।