ru-hall-

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলোতে দীর্ঘদিন ধরে ওয়াশরুমসহ বিভিন্ন দরজা-জানালা ভাঙা ও নষ্ট দেখা গেলেও সংস্কারের কোনো উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে না। প্রকৌশল দপ্তর কাঠ শুকানোর বাহানায় সংস্কারের কাজে হাত দিচ্ছেন না এমনটাই অভিযোগ রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন হলের আবাসিক শিক্ষার্থীরা।

সরেজমিনে দেখা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের শাহ মখদুম, নবাব আব্দুল লতিফ, শেরে বাংলা, সৈয়দ আমীর আলীসহ বিভিন্ন হলের ওয়াশরুমের দরজা-জানালা ভাঙা রয়েছে। কোনো কোনো দরজা গত এক বছর ধরে নষ্ট রয়েছে। তাছাড়া ট্যাবে সর্বদা পানি পড়ে ও ওয়াশরুম অপরিষ্কার থাকে। এতে পানির অপচয় হচ্ছে এবং ওয়াশরুম থেকে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। কিন্তু কোনো উদ্যোগ না নেয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছে আবাসিক শিক্ষার্থীরা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শাহ মখদুম হলের আবাসিক শিক্ষার্থী রবিউল ইসলামসহ শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেন, ওয়াশরুমের দরজা ভাঙা থাকায় আমরা গোসল ও অন্যান্য কাজ ঠিকমতো করতে পারি না। হল প্রশাসনের কাছে বললেও তারা মেরামত করে না।

নবাব আব্দুল লতিফ হলের আবাসিক শিক্ষার্থী মামুন বলেন, ওয়াশরুমসহ হল সংস্কারের দাবিতে ১২টি দফা দিলেও তা বাস্তবায়ন হয়নি। বারবার কর্তৃপক্ষকে অবহিত করলেও কোনো উদ্যোগ নেয়নি তারা। ফলে এমন অবস্থা নিয়েই চলতে হচ্ছে আমাদের।

সৈয়দ আমীর আলী হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক আমিনুল ইসলাম অভিযোগ করেন, প্রকৌশল দপ্তরকে হলের বিভিন্ন দরজা জানালা সংস্কারের জন্য গত দুই মাস আগে থেকে বলছি তবে তারা এ বিষয়ে কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। শিক্ষার্থীরা বারবার অভিযোগ করছেন।

সংস্কার না হওয়া সম্পর্কে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয় প্রধান প্রকৌশলী সিরাজুম মুনীর বলেন, নির্দিষ্টভাবে বলা যাচ্ছে না কবে সংস্কার করা হবে। আবেদনের প্রেক্ষিতে কাজ চলছে। তাছাড়া হলগুলোর দরজা জানালা সংস্কারের জন্য নির্ধারিত প্রক্রিয়া অবলম্বন করতে হয়। এজন্য কিছুটা সময় লাগতে পারে।