muhit

অর্থমন্ত্রীর কাছে তথ্যপ্রযুক্তি সংশ্লিষ্ট সংশোধিত বাজেট প্রস্তাব আনুষ্ঠানিকভাবে পেশ করেছেন বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর। বৃহস্পতিবার রাজধানীয় আগারগাঁওয়ের অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় বিস্তারিত আলোচনায় এ প্রস্তাব পেশ করা হয়।
বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর সেবার ওপর থেকে মূসক সম্পূর্ণরূপে প্রত্যাহারের অনুরোধ করেন। একইসঙ্গে অবিলম্বে ভ্যাট অটোমেশন সফটওয়্যারের মাধ্যমে ভ্যাটগ্রহণের প্রক্রিয়া শুরুর দাবি জানান।

সৈয়দ আলমাস কবীর বলেন, ২০২৪ সাল পর্যন্ত আইটি/আইটিইএস-এর জন্য ২০২৪ সাল পর্যন্ত কর্পোরেট ট্যাক্স মওকুফ রয়েছে। এজন্য জাতীয় রাজস্ব বোর্ড থেকে কর অব্যাহতি সনদ সংগ্রহ করতে নানাবিধ জটিলতা হয়। এজন্য উক্ত প্রত্যয়নপত্র বেসিস থেকে ইস্যু করার জন্য বেসিসকে দায়িত্ব দেয়ার প্রস্তাব করেন। পাশাপাশি সব ব্যাংকে বৈদেশিক মুদ্রায় আনা রফতানি আয়ের ওপর কোনো অগ্রিম আয়কর কর্তন না করার জন্য জাতীয় রাজস্ব বোর্ড থেকে একটি পত্র জারির অনুরোধ করেন।

এছাড়াও বেসিস সভাপতি ইন্টারনেট সেবার উপর ধার্য মূসক সম্পূর্ণরূপে প্রত্যাহার করে প্রান্তিক পর্যায়ের গ্রাহকদের কাছে ইন্টারনেট সহজলভ্য করে ২০২১ সালের মধ্যে ৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রফতানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন এবং ডিজিটাল বাংলাদেশ রূপকল্প বাস্তবায়ন নিশ্চিতের জন্য অর্থমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। সভায় ‘অনলাইনে পণ্য বিক্রয়’ এবং ‘ভার্চুয়াল বিজনেস’ এর সংজ্ঞা স্পষ্টকরণ করে ই-কমার্স খাতের ব্যবসা সম্প্রসারণে অর্থমন্ত্রীর সহায়তা কামনা করেন। সভায় আইটি ও আইটিইএস রফতানিতে নগদ প্রণোদনার জন্য আবেদনের সময়সূচি যৌক্তিক কারণে সেপ্টেম্বর ২০১৮ পর্যন্ত বাড়ানোর অনুরোধ করেন।

সভায় বেসিসের উক্ত প্রস্তাবগুলো অর্থমন্ত্রী, ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী এবং এনবিআর চেয়ারম্যান অত্যন্ত মনযোগ সহকারে শোনার পর, সংশোধিত প্রস্তাবগুলো অন্তর্ভুক্তকরণের ব্যাপারে ইতিবাচক সাড়া দিয়েছেন।

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূইয়া, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সচিব সুবীর কিশোর চৌধুরী, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সদস্য-শুল্কনীতি ও আইসিটি ফিরোজ শাহ আলম প্রমুখ।