fire

বিশ্বকাপের শুরুটা ভালো হয়নি সৌদি আরবের। উদ্বোধনী ম্যাচেই স্বাগতিক রাশিয়ার কাছে ৫-০ গোলের বিশাল ব্যবধানে হেরে গেছে তারা। সেই ভয়াবহ দুঃস্মৃতি মাথায় নিয়ে তারা রস্তভে যাচ্ছিলো উরুগুয়ের বিপক্ষে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে মাঠে নামার জন্য। তখনই ঘটলো আরেকটি ভয়াবহ ঘটনা। মাঝ আকাশেই সৌদি আরবের ফুটবল দলকে বহনকারী বিমানটিতে আগুন ধরে যায়।

রস্তভ এয়ারপোর্টে নামার আগেই মাঝ আকাশে সৌদি আরবের খেলোয়াড়দের বহন করা বিমানে ইঞ্জিনে আগুনের শিখা দেখা যায়। আর এটির ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে ছড়িয়ে পড়ে। ভিডিওতে দেখা যায়, বিমানের পাখাতে দাও দাও করে জ্বলছে আগুন।
তবে স্বস্তির ব্যাপার হচ্ছে, বড় কোনো দুর্ঘটনা ঘটেনি। সৌদি আরবের সব খেলোয়াড়, কোচ এবং স্টাফরা সুস্থ আছেন। কেউই আক্রান্ত হননি। তারা বিমান থেকে নেমে ধীরে সুস্থেই হোটেলে পৌঁছেছেন। বিমানটি ছিলো রাশিয়ার এয়ারলাইন্স রশিয়ার এয়ারবাস এ৩১৯-১০০।

রশিয়া এয়ারলাইন্স থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়, ‘সেন্ট পিটার্সবার্গ থেকে রস্তভে যাওয়ার সময় এ৩১৯ বিমানের একটি ইঞ্জিনে টেকনিক্যাল সমস্যা হয়। সেখানে একটি পাখিকে আটকে গিয়েছিল বলেই এমন হয়েছে। এটাকেই প্রাথমিক কারণ মনে করা হচ্ছে। তবে কোন কিছুই যাত্রীদের হুমকির মুখে ফেলতে পারেনি।’