pahar

টানা বৃষ্টির কারণে রাঙামাটিতে পাহাড় ধসের ঘটনা ঘটেছে। রোববার (১০ জুন) রাতে শহরের শিমুলতলী এবং কলেজগেট এলাকার ওলি পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। তবে হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। ফায়ার সার্ভিসের সহায়তায় স্থানীয় প্রশাসন উদ্ধার কাজ চালাচ্ছে এবং বাসিন্দাদের নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নিতে মাইকিং করা হচ্ছে।
স্থানীয়রা জানান, সকাল থেকে টানা বর্ষণ শুরু হয়। অতি বর্ষণের কারণে রাত ১০টার দিকে শহরের কলেজগেট এলাকার ওলি পাড়া এবং শিমুলতলী বসতি এলাকায় পাহাড় ধসে পড়ে।

অপরদিকে একইদিন সকালে শহরের রাঙামাটি চেম্বার অব কর্মাস ভবনের পার্শ্ববর্তী সড়কে ধস, বিকেলে রাঙামাটি সিনিয়র মাদ্রাসার পার্শ্ববর্তী দেয়াল ধস এবং রাত সাড়ে ১০টার দিকে চম্পকনগর এলাকায় পরিবার পরিকল্পনা অফিসের দেয়াল ধসে পড়েছে বলে জানা গেছে।

রাত সাড়ে ১০টার দিকে চট্টগ্রাম-রাঙামাটি শহরের শালবাগান এলাকায় বৈদ্যুতিক খুঁটি পড়ে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। এমনিতে সন্ধ্যার পর থেকে পুরো জেলায় বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন রয়েছে।

বিদ্যুৎ বিভাগ জানায়, টানা বর্ষণে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যাচ্ছে বারবার।

এদিকে জেলা প্রশাসন এবং ফায়ার সার্ভিস রাত ১০টার থেকে ঝুঁকিপূর্ণ স্থান শিমুলতলী, রূপনগর এবং ওলিপাড়া থেকে স্থানীয়দের দ্রুত সরিয়ে নিতে কাজ শুরু করেছে।

রাঙামাটি ফায়ার সার্ভিসের উপ-পরিচালক দিদরুল আলম জানান, রোববার থেকে ফায়ার সার্ভিস মাঠে তৎপর রয়েছে। শহরের চম্পকনগর এলাকায় দেয়াল ধসে পড়ায় স্থানীয়দের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

রাঙামাটি জেলা প্রশাসনের নেজারত ডেপুটি কালেক্টর (এনডিসি) তাপস শীল  জানান, রোববার থেকে প্রশাসন ঝুঁকিপূর্ণ স্থানসমূহ থেকে বাসিন্দাদের সরিয়ে নিতে কাজ করছে। বর্তমানে জেলা প্রশাসকসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা শিমুলতলী এবং রূপনগর এলাকায় স্থানীয়দের সনিয়ে নিতে কাজ করছেন।

এছাড়া স্থানীয়দের ঝুঁকিপূর্ণ স্থান থেকে সরিয়ে নিতে মাইকিং করা হচ্ছে বলে জানান প্রশাসনের এ কর্মকর্তা।