bd-woman-

তুলনামূলক দুর্বল শ্রীলংকার বিপক্ষে বিব্রতকর হার দিয়ে নারী এশিয়া কাপ শুরু করেছিল বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল। সেই ম্যাচে নিজেদের ভুলগুলো থেকে শিক্ষা নিতে ভুল করেনি সালমা-রোমানারা। নিজেদের পরের দুই ম্যাচে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তান এবং ভারতকে হারিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশের নারীরা।

সোমবার পাকিস্তানকে ৭ উইকেটে হারানোর পর, বুধবারও একই ব্যবধানে প্রতিবেশী দেশ ভারতকে হারাল সালমা খাতুনের নেতৃত্বাধীন দল। ফাইনাল খেলার যে স্বপ্ন নিয়ে মালয়েশিয়ায় গিয়েছিল নারী দল তা এখন দূরের বাতিঘর নয়। ৩ ম্যাচে ২ জয় নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের চার নম্বরে উঠে এসেছে তারা।
কুয়ালালামপুরের কিনরারা ওভাল মাঠে টসে জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় ভারত। রোমানা আহমেদ-সালমা খাতুনদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে নির্ধারিত বিশ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৪১ রান করতে সক্ষম হয় ভারতের নারীরা। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪২ রান করেন হারমানপ্রিত কৌর। ৩২ রান আসে দীপ্তি শর্মার ব্যাট থেকে।

বাংলাদেশের ৪ ওভারে মাত্র ২১ রান খরচায় ৩ উইকেট নেন রোমানা। ৩ ওভার বল করে ২১ রান খরচায় ১টি উইকেট নেন সালমা। বাকি ৩ উইকেটই আসে রান আউটের মাধ্যমে।

রান তাড়া করতে নেমে দুর্দান্ত সূচনা এনে দেন বাংলাদেশের ওপেনার শামীমা সুলতানা। মাত্র ২৩ বলে ৩৩ রান করেন তিনি। ওপর ওপেনার আয়েশা রহমান করেন ১২ রান। চারে নামা নিগার সুলতানা (১) ব্যর্থ হলেও, চতুর্থ উইকেটে অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়ে ম্যাচ শেষ করেন ফারজানা হক এবং রোমানা আহমেদ।

৮ম ওভারের পঞ্চম বলে জুটি বাঁধেন রোমানা এবং ফারজানা। ম্যাচ শেষ করার আগে মাত্র ৬৯ বলে ৯৩ রানের জুটি গড়েন এই দুজন। ক্যারিয়ারের প্রথম টি-টোয়েন্টি ফিফটিতে ৪৬ বলে ৫২ রান করেন ফারজানা। রোমানার ব্যাট থেকে আসে ৩৪ বলে ৪২ রানের ইনিংস।

আগামীকাল বৃহস্পতিবার থাইল্যান্ডের বিপক্ষে নিজেদের চতুর্থ ম্যাচে মাঠে নামবে বাংলাদেশ নারী দল। এই ম্যাচ জিতলে উজ্জ্বল হবে শীর্ষ দুইয়ে থেকে ফাইনালের টিকিট পাওয়ার সম্ভাবনা।