nasim-b

‘সম্প্রতি বিশ্বের অন্যতম প্রাচীন মেডিকেল জার্নাল দ্য লানসেটে প্রকাশিত এক গবেষণা জরিপে ‘বাংলাদেশে স্বাস্থ্যসেবার মান ভারত ও পাকিস্তানের চেয়ে উন্নত’ বলে স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে। এটিই নয় বিশ্বের বিভিন্ন সংস্থা বাংলাদেশের স্বাস্থ্যসেবাকে মডেল ধরে নিয়ে কাজ করছে,’- বলেন নাসিম।

স্বাচিপ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. ইকবাল অার্সনালের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্যে স্বাচিপের কেন্দ্রীয় কমিটির মহাসচিব অধ্যাপক ডা. এমএ আজিজ বলেন, বাংলাদেশের চিকিৎসা ব্যবস্থা অনেক দূর এগিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের স্বাস্থ্যখাতের অনেকগুলো বিষয় সারাবিশ্বে অনুকরণীয় হয়েছে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্বাস্থ্যসেবার উন্নয়ন ও যুগোপযোগী করার লক্ষে দেশে নতুন করে দুটি মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় করার ঘোষণা দিয়ে তা বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছেন। তার দৃঢ়তার কারণে ৫০০ শয্যার শেখ হাসিনা বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের কাজ প্রায় শেষ। এটি চালু হলে বিশ্বের বুকে স্বাস্থ্যখাতের আরেকটি বড় মাইলফলকে পা রাখবে বাংলাদেশ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী অধ্যাপক ডা. আফম রুহুল হক বলেন, ‘আমরা দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় এসে বাংলাদেশে স্বাস্থ্যসেবা উন্নয়নের রূপরেখা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে করেছিলাম, যার ফল পাচ্ছে দেশবাসী। স্বাস্থ্যসেবার উন্নয়ন অনেক দূরে এগিয়ে নিতে চিকিৎসকদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।’

সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডা. হাবিবে মিল্লাত বিশেষ অতিথির বক্তেব্যে বাংলাদেশের চিকিৎসাব্যবস্থা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কথা উল্লেখ করে বলেন, আমরা বিশ্ববাসীকে স্বাস্থ্যসেবার উন্নয়ন করে তাক লাগিয়ে দিয়েছি। জনগণের প্রয়োজনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে চতুর্থবারের মতো ক্ষমতায় আনতে হবে। কারণ বাংলাদেশের উন্নয়ন একমাত্র শেখ হাসিনার হাতেই সম্ভব।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সংসদ সদস্য ডা. ইউনুস আলী সরকার বলেন, সংসদে আমরা অল্প কজন চিকিৎসক প্রতিনিধিত্ব করি। স্বাস্থ্যখাতে কোনো সমস্যা হলে সকল সংসদ সদস্য চিকিৎসকদের তুলাধুনা করেন।স্বাস্থ্যসেবাকে আরও অগ্রগতি করতে হলে জাতীয় সংসদে আরেও বেশি চিকিৎসকের প্রতিনিধিত্ব থাকা উচিত বলে আমি মনে করি।