furits jus

গর্ভাবস্থায় মায়েদের স্বাস্থের বেশি যত্ন নিতে হয়। এজন্য স্বাস্থ্যকর খাবারের কোন বিকল্প নেই। আর এ সময় ফলের রসের কোন বিকল্প নেই। এ সময় ফলের রস খেলে তা মা ও শিশুর স্বাস্থ্যের উপর ইতিবাচক প্রভাব ফেলে। গর্ভাবস্থায় দিনে এক গ্লাস ফলের রস খেলে তা বেশ কিছুক্ষনের জন্য পেট ভরাট রাখতেও সাহায্য করে। একই সঙ্গে মায়ের চেহারায়ও চমক আসে।

গর্ভাবস্থায় নিয়মিত আপেলের রস খেলে শরীরও সুস্থ থাকবে , শিশুও পুষ্টি পাবে।

পেয়ারা গর্ভাবস্থায় কোষ্টকাঠিন্যের সমস্যা সারাতে ভূমিকা রাখে। যারা এই সময় কোষ্টকাঠিন্যের সমস্যায় পড়েন তাদের নিয়মিত পেয়ারার রস খাওয়া উচিত।

কমলার রস যেকোন ধরনের ফ্লু প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে। এটি রোগ প্রতিরোধেরও ভালো উৎস। এ কারণে সুস্থ থাকতে গর্ভাবস্থায় কমলার রস খাওয়া উচিত।

গর্ভাবস্থায় সবচেয়ে কার্যকরী হচ্ছে কলা, দই আর মধু দিয়ে তৈরি জুস। এটা স্বাদ এবং গুণের দিক দিয়ে এগিয়ে।

এই জুস তৈরি করতে মধু, কলা আর দই একসঙ্গে নিয়ে ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে ফেলুন। এরপর এতে পরিমান মতো পানি মেশান। ভালো ফল পেতে প্রতিদিন বিকালে একবার করে এই জুসটি খেতে পারেন।

এছাড়া গর্ভাবস্থায় আঙ্গুর এবং বিটের রসও বেশ উপকারী।

সূত্র : স্টাইলক্রেজ