dhaka-board

উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) ও সমমান পরীক্ষার নীতিমালা অনুসরণ না করায় রাজধানীর সাত কলেজকে শোকজ করা হয়েছে। মঙ্গলবার ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানের স্বাক্ষরিত আলাদাভাবে দুটি শোকজ জারি করা হয়েছে। শোকজের উত্তর দিতে ছয় কলেজ কর্তৃপক্ষকে সাত কার্যদিবস ও একটি কলেজকে তিন কর্মদিবস সময় জুড়ে দেয়া হয়েছে।

জানা গেছে, এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা পরিচালনা নীতিমালা-২০১৮ লঙ্ঘন করেছে রাজধানীর সাত কলেজ কর্তৃপক্ষ। তাদের মধ্যে কেন্দ্র সচিব ঢাকা ট্রেজারি থেকে প্রশ্নপত্র গ্রহণের সময় কালো গ্লাসযুক্ত গাড়ি ব্যবহার করায় মিরপুর কলেজ, শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজ, কদমতলা পূর্ব বাসাবো স্কুল অ্যান্ড কলেজ, মোহাম্মদপুর প্রিপারেটরি স্কুল অ্যান্ড কলেজ এবং বিসিআইসি কলেজ কর্তৃপক্ষকে শোকজ করা হয়েছে।
এছাড়াও ট্রেজারি থেকে প্রশ্ন গ্রহণের সময় কেন্দ্র সচিবের সঙ্গে ক্যামেরাযুক্ত মোবাইল সঙ্গে রাখায় ঢাকার ফজলুল হক মহিলা কলেজ কর্তৃপক্ষকে শোকজ করা হয়েছে। শোকজের উত্তর দিতে তাদের আগামী সাত কার্যদিবস সময় দেয়া হয়েছে।

অন্যদিকে, পরীক্ষা চলাকালীন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা পরীক্ষা কেন্দ্রে স্মার্টফোন ব্যবহার করায় রাজধানীর সেন্ট্রাল উইমেন্স কলেজকে শোকজ করা হয়েছে। আগামী তিন কার্যদিবসের মধ্যে ঢাকা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক বরাবর শোকজের উত্তর চাওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে ঢাকা বোর্ডের চেয়ারম্যান মুহাম্মদ জিয়াউল হক বলেন, এইচএসসি পরীক্ষার দ্বিতীয় দিনে ঢাকার সাতটি কলেজের কিছু শিক্ষক পরীক্ষা পরিচালনা নীতিমালা ভঙ্গ করেছে। আমরা তাদের শোকজ করেছি। তাদের উত্তর পাওয়ার পর বিবেচনা করে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উল্লেখ্য, এইচএসসি পরীক্ষার দ্বিতীয় দিনে সাধারণ আটটি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে বাংলা ২য় পত্র (আবশ্যিক), সহজ বাংলা ২য় পত্র, বাংলা ভাষা ও বাংলাদেশের সংস্কৃতি ২য় পত্র, কারিগরি বোর্ডের অধীনে বাংলা দ্বিতীয়পত্র (আবশ্যিক) পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে।