muhit

২০১১ সালে বাণিজ্যিক ব্যাংকের লাইসেন্সের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকে আবেদন করেছিল ক্ষুদ্রঋণ ভিত্তিক উন্নয়ন সংস্থা ‘ঠেঙ্গামারা মহিলা সবুজ সংঘ (টিএমএসএস)’। সাত বছর পর ওই আবেদন প্রত্যাখান করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকারের এই মেয়াদে আর কোনো ব্যাংকের লাইসেন্স দেওয়া হবে না জানিয়ে অর্থমন্ত্রী বলেছেন, ভবিষ্যতে যদি কোনো ব্যাংকের লাইসেন্স দেওয়া হয়, তখন টিএমএসএস সবার আগে পাবে।

টিএমএসএস’র একটি ক্ষুদ্রঋণ ভিত্তিক এনজিও। ১৯৮০ সালে অশোক ফেলো, প্রফেসর ড. হোসনে আরা বেগম বগুড়ায় এনজিওটি প্রতিষ্ঠা করেন। এটি একটি নারী ভিত্তিক বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠান। যা বাংলাদেশে দারিদ্র্য বিমোচন, নারীর ক্ষমতায়ন, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, প্রযুক্তি ও আর্থ-সামাজিক অবকাঠামো উন্নয়নের উদ্দেশে কাজ করছে।

টিএমএসএস চেয়ারপারসন হোসনে আরা বেগম ব্যাংক কোম্পানি আইন ১৯৯১-এর ৩১ ধারা মোতাবেক বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগে ২০১১ সালে ‘টিএমএসএস ক্ষুদ্র পুঁজি ব্যাংক লিমিটেড’ নামে একটি বাণিজ্যিক ব্যাংকের লাইসেন্স চেয়ে আবেদন করেন। সম্প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংক ওই আবেদনের বিষয়ে অর্থমন্ত্রীর মতামত চেয়ে অর্থমন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছে। অর্থমন্ত্রী তা প্রত্যাখান করে বাংলাদেশ ব্যাংককে লিখেছেন, ‘আমাদের এই মেয়াদে আর কোনো ব্যাংকের লাইসেন্স দেওয়া হবে না। এটি ভবিষ্যতের জন্য তালিকাভুক্ত করে রাখুন। ভবিষ্যতে যখন কোনো ব্যাংকের লাইসেন্স দেওয়া হবে। তখন এটি সবার আগে পাবে।’

এদিকে সাতবছর পর টিএমএসএস এনজিওর আবেদন প্রত্যাখান করা হলেও ২০১৭ সালের নভেম্বরে বাংলা ব্যাংক, পিপলস ব্যাংক ও পুলিশ ব্যাংক নামে নতুন তিনটি ব্যাংকের লাইসেন্স দিতে সম্মতি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। এ বিষয়ে পরবর্তী কার্যক্রম শুরুর জন্য প্রধানমন্ত্রীর সারমর্ম বাংলাদেশ ব্যাংকে পাঠিয়েছে অর্থমন্ত্রণালয়।