frkTvq

নিজেদের মধ্যে দ্বন্দ্ব মিটিয়ে সু্প্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিল করলেন বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা।

রবিবার (১১মার্চ) দুপুর দেড়টায় জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য প্যানেল তাদের মনোনয়নপত্র দাখিল করেন।

সমিতির বর্তমান সভাপতি জয়নুল আবেদীন ও ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকনের নেতৃত্বে বিএনপি ও জামায়াতপন্থি আইনজীবীরা নীল প্যানেলে তাদের মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। জয়নুল আবেদীন বিএনপির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান ও ব্যারিস্টার এএম মাহবুব উদ্দিন খোকন যুগ্ম-মহাসচিবের দায়িত্ব পালন করছেন।

মনোনয়নপত্র দাখিল করার সময় উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সিনিয়র আইনজীবী ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, সুপ্রিম কোর্ট বারের সাবেক সভাপতি খন্দকার মাহবুব হোসেন, বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা নিতাই রায় চৌধুরী, ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, অ্যাডভোকেট আমিনুল ইসলাম, অ্যাডভোকেট সগীর হোসেন লিওনসহ অনেক আইনজীবী।

এদিকে ১০ মার্চ সন্ধ্যায় বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ জ্যেষ্ঠ নেতাদের সঙ্গে আইনজীবীদের বৈঠক হয়। বৈঠকে জয়নুল-মাহবুব প্যানেলকে চূড়ান্ত বলে ঘোষণা করা হয়। এদিকে অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার ও সমিতির সাবেক সহসম্পাদক একেএম রফিকুল ইসলাম তালুকদার রাজাসহ যেসব আইনজীবী বিদ্রোহী প্যানেল দিয়েছিলেন তারা সবাই প্রার্থিতা প্রত্যাহার করেন।

আগামী ২১ ও ২২ মার্চ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনের ভোটগ্রহণ করা হবে। এবারের নির্বাচনে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের (সিইসি) দায়িত্ব পালন করবেন এ ওয়াই মশিউজ্জামান। যিনি সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সম্পাদক।

বিএনপি সমর্থকদের নীল প্যানেল সমিতির বর্তমান সভাপতি-সম্পাদককে আবারও মনোনয়ন দিয়ে প্যানেল ঘোষণা করায় বিএনপি সমর্থক একাংশ আপত্তি জানান।

পরে ৭ মার্চ বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা তৈমুর আলম খন্দকারকে সভাপতি এবং অ্যাডভোকেট এবিএম রফিকুল হক তালুকদার রাজাকে সম্পাদক ও ড. গোলাম হোসেনকে (জামায়াত) প্রার্থী করে আরেকটি প্যানেল ঘোষণা করেন তারা।