Hacking Jackpot in US

যুক্তরাষ্ট্রের সিক্রেট সার্ভিস দেশটির ব্যাংকগুলোতে এটিএম মেশিন হ্যাকের পদ্ধতি ‘জ্যাকপট’ সম্পর্কে সতর্ক থাকতে বলেছে। ইউরোপ ও এশিয়ার বিভিন্ন দেশের এটিএম মেশিনগুলোতে হানা দেয়ার পর এবার যুক্তরাষ্ট্রের এটিএম মেশিন থেকে ‘জ্যাকপট’ দিয়ে হ্যাকাররা টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে বলে জানিয়েছে সিএনএন মানি।

এই পদ্ধতিতে এটিএম হ্যাক করার জন্য চোরেরা ম্যালওয়ার ও ফিজিক্যাল হ্যাকিং টুল ব্যবহার করে এটিএম মেশিনের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয়। হ্যাকাররা সফল হলে ক্যাসিনোর স্লট মেশিনে জ্যাকপট জেতার মতো টাকা বেরিয়ে আসে এটিএম মেশিন থেকে।

যুক্তরাষ্ট্রের সিক্রেট সার্ভিসের একটি বিজ্ঞপ্তির বরাত দিয়ে সিএনএন টেক জানিয়েছে, আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর বিভিন্ন দুর্বলতা সনাক্ত করতে সক্ষম হয়েছে হ্যাকাররা। বিভিন্ন ফার্মেসি, ও হাইওয়ের পাশে বিছিন্নভাবে অবস্থিত এটিএম মেশিনগুলো থেকে এভাবে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে হ্যাকাররা।

গত কয়েক দিনে যুক্তরাষ্ট্রের এটিএম মেশিনগুলোতে এরকম মোট ছয়টি আক্রমণ চালানো হয়েছে। এখন পর্যন্ত জ্যাকপট দিয়ে এক মিলিয়ন ডলারেরও বেশি চুরি করেছে হ্যাকাররা।

এটিএম মেশিন নির্মাতা ডিবল্ড নিক্সডর্ফ ও এনসিআর কর্পোরেশন তাদের ক্রেতা ও গ্রাহকদেরকে সতর্ক করে দিয়েছে। ডিবল্ড নিক্সডর্ফের একজন কর্মকর্তা জানিয়েছে পুরাতন ডিবল্ড মেশিনগুলোকে টার্গেট করছেন হ্যাকাররা।

গত বছর ল্যাটিন আমেরিকার বিভন্ন দেশে এভাবে হ্যাকিং ছড়িয়ে পড়েছিল।

সিএনএন মানি জানিয়েছে এবার ইউরোপ ও এশিয়ার বিভিন্ন দেশেও এভাবে জ্যাকপট দিয়ে এটিএম হ্যাক করছে চোরেরা।

ইন্টেলিজেন্স ফার্ম সিওয়াইআরসিওএন-এর প্রধান পাউলো শাকারিয়ান জানিয়েছেন সম্প্রতি ডার্ক ওয়েবে জ্যাকপটের ব্যবহার লক্ষণীয়ভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। বিশেষ সফটওয়ার ব্যবহার করে খুব গোপনে বিচরণ করা যায় এমন ওয়েবসাইটের নেটওয়ার্ককে ডার্ক ওয়েব বলে। কয়েকটি ডার্ক ওয়েবসাইটের বিরুদ্ধে অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের অভিযোগ রয়েছে।