govt

সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়। বাংলাদেশের পিছিয়ে পরা এবং অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর মানব সম্পদ উন্নয়ন, দারিদ্র্য বিমোচন, কল্যাণ, উন্নয়ন ও ক্ষমতায়ণ সাথে সংশ্লিষ্ট একটি অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়। এ মন্ত্রণালয়ের বাজেট আগে অনেক কম থাকলেও বর্তমান সরকারের আমলে অনেকগুণ বৃদ্ধি করা হয়েছে।

২০১৪ সালের ৫ই জানুয়ারির নির্বাচনের পর সরকার গঠনের সময় মন্ত্রী হিসেবে এ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পান প্রয়াত সৈয়দ মহসিন আলী। কিন্তু ২০১৫ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর মৃত্যু হয় তার। তার মৃত্যুতে মন্ত্রণালয়টির দায়িত্ব পালন করে যান প্রয়াত প্রমোদ মানকিন।

নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর ২০১২ সালের ১৫ সেপ্টেম্বর এ মন্ত্রনালয়টির প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পান প্রমোদ মানকিন। এরপর দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পরেও তিনি এ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পান তিনি। তবে মহসিন আলীর বিদায়ের ৮ মাসের মাথায় ২০১৬ সালের ১১ মে না ফেরার দেশে পাড়ি জমান প্রমোদ মানকিন।

মন্ত্রী আর প্রতিমন্ত্রীর মৃত্যুর পর মন্ত্রণালয়টি এতিমের মত হয়ে যায়। তবে ২০১৬ সালের ১৯ জুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ মন্ত্রণালয়ে প্রতিমন্ত্রী হিসেবে বসান বর্তমান প্রতিমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদকে। যিনি এখনও সুনামের সাথেই দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন।

অন্যদিকে সদ্য রদবদল হওয়া মন্ত্রীসভায় এ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীর দায়িত্ব দেয়া হয় রাশেদ খান মেননকে। মন্ত্রী আর প্রতিমন্ত্রীতে যেন প্রাণ ফিরে পেয়েছে এ মন্ত্রণালয়। বৃহস্পতিবার (৪ জানুয়ারি) দুপুরে সচিবালয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব গ্রহণ করেন রাশেদ খান মেনন।

তিনি বলেন, আমাদের সমাজে অনগ্রসর অংশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার দায়িত্ব রাষ্ট্রের। আমাদের দায়িত্ব জনগণের জন্য কাজ করা। এ মন্ত্রণালয়ে অধিকতর সুযোগ রয়েছে মানুষের সাথে কাজ করার। এসময় সবার সহযোগীতা চান তিনি।

এসময় সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ বলেন, প্রধানমন্ত্রীর প্রত্যাশা অনুযায়ী এ মন্ত্রণালয়ের কাজ এগিয়ে যাবে। আমরা সবাই মন্ত্রীকে সহযোগিতা করব। তার নেতৃত্বে এগিয়ে যাব। এ মন্ত্রণালয়ের কাজ আগের চেয়েও এগিয়ে যাবে।