photo

পহেলা জানুয়ারি থেকে শুরু হচ্ছে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা-২০১৮। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই মেলার উদ্বোধন করবেন। এবারের মেলায় প্রায় ৫৮৯টি প্যাভিলিয়ন, মিনি প্যাভিলিয়ন, স্টল এবং বঙ্গবন্ধু প্যাভিলিয়ন থাকছে। তাই মেলা উদ্বোধনের আগে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি চলছে।

রাজধানীর শেরে বাংলা নগরের নির্ধারিত স্থানে সাড়ে ১২ লাখ স্কয়ার ফুট এলাকায় বসবে বাণিজ্য মেলার ২৩তম আসর। রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো এই মেলার আয়োজক।

এবারের মেলায় থাকবে একটি বঙ্গবন্ধু প্যাভিলিয়ন, রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর একটি বাণিজ্য তথ্য কেন্দ্র, ৬৫টি প্রিমিয়াম প্যাভিলিয়ন, ১৬টি সাধারণ প্যাভিলিয়ন, ২৩টি বিদেশি প্যাভিলিয়ন, ছয়টি রিজার্ভ প্যাভিলিয়ন, সাতটি রিজার্ভ মিনি প্যাভিলিয়ন, ৭২টি প্রিমিয়ার স্টল, ১৩টি বিদেশি প্রিমিয়ার স্টল, ২৫৩টি সাধারণ স্টল, ৩১টি খাবারের স্টল, নারীদের জন্য সংরক্ষিত ২০টি স্টল, তিনটি রেস্টুরেন্ট এবং মা ও শিশুদের জন্য তিনটি স্টল।

ব্যবসার জন্য তৈরি স্টল ছাড়াও থাকছে শিশুদের জন্য অ্যামিউজমেন্ট পার্ক, মা ও শিশু কেন্দ্র, নারী-পুরুষদের জন্য আলাদা নিরাপত্তা কেন্দ্র, ফায়ার সার্ভিস স্টেশন, বিদ্যুতের সাব স্টেশন এবং মেলার বাইরে গাড়ি পাকিং এর স্থান।

শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতিতে এখন ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন আয়োজকরা। স্টল তৈরি, সাজ-সজ্জা, রং করা, ধোয়া-মোছাসহ বিবিধ কাজে শেষ কটা দিন পার করছেন স্টল মালিক ও কর্মীরা। সবকিছু ঠিক থাকলে আর মাত্র চারদিন পরই উঠবে নতুন বছরের প্রথম এই আয়োজনের।