education

চাকরিচ্যুত হচ্ছেন সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও প্রধান শিক্ষক মো. ইনছান আলী। রোববার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসেন এ সংক্রান্ত নথিতে স্বাক্ষর করেছেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

সূত্র জানান, চাকরি বিধি ১৯৭৯ লঙ্ঘন করে সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছেন ইনছান আলী। গত কয়েকমাস আগে তৎকালীন কর্মস্থল রাজধানীর ধানমন্ডি গভর্নমেন্ট বয়েজ হাই স্কুলে আয়োজিত বৈঠকে তিনি শিক্ষকদের উজ্জীবিত করতে সরকারবিরোধী বক্তব্য দেন। এ ছাড়া প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের নাম ভাঙিয়ে চাঁদাবাজিসহ একাধিক গুরুতর অভিযোগ তার বিরুদ্ধে।

অভিযোগের প্রেক্ষিতে নভেম্বরের মাঝামাঝিতে মাউশি (মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর) মহাপরিচালক প্রফেসর ড. এস এম ওয়াহিদুজ্জামান স্বাক্ষরিত বদলি আদেশ জারি করে। আদেশে ধানমন্ডি গভর্নমেন্ট বয়েজ হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. ইনছান আলীকে বদলি করে রাজবাড়ী সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ে পাঠানো হয়।

জানা গেছে, ইনছান আলীর বিরুদ্ধে সব অভিযোগের প্রমাণ পেয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এরই আলোকেই তাকে চাকরিচ্যুত করতে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে। আগামী ১০ কর্মদিবসের মধ্যে নোটিশের জবাব দিতে বলা হয়েছে। জবাব সন্তোসজনক না হলে তাকে চাকরিচ্যুত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

তবে এ বিষয়ে ইনছান আলী বলেন, আমার প্রতিদ্বন্দ্বী কিছু ব্যক্তি ষড়যন্ত্র করে চাকরিচ্যুতের চেষ্টা করছেন। এ ছাড়া সব অভিযোগ মিথ্যা বলে দাবি করেন তিনি।