২০তম আসরে বাংলাদেশে প্রথম

দেখতে দেখতে আর্চারির ১৯টি আসর শেষ হয়েছে। বাংলাদেশ এখন পর্যন্ত কোন আসরের হোস্ট হতে পারেনি। অবশেষে সে আক্ষেপ ঘুচতে যাচ্ছে বাংলাদেশের। এশিয়ার সবচেয়ে বড় টুর্নামেন্ট ‘এশিয়ান আর্চারি চ্যাম্পিয়নশিপ ২০১৭’ ঢাকায় শুরু হতে যাচ্ছে ২৫ নভেম্বর থেকে। টুর্নামেন্টের ২০তম আসরে এসে বাংলাদেশ প্রথমবারের মত আয়োজন করছে এশিয়ান আর্চারি। যাতে অংশ নেবে ৩৫টি দেশ।২০০৫ থেকে এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশ। এবার দেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করছেন ১৮ জন। যার মধ্যে ৮ জন রিকার্ভে এবং ৮ জন কম্পাউন্ডে। নয় মাসের প্রস্তুতি ক্যাম্প শেষে নিজেদের মূল আসরের জন্য ঝালিয়ে নিয়েছেন আর্চাররা।

তবে অনেকটা পর্দার পেছনে থেকে অর্জনের মতোই বিষয় সেটি। আর্চারিতে সাফল্য আছে মোটামুটি, কিন্তু সুযোগ-সুবিধা কম। বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে এশিয়ান আর্চারির জন্য স্বাগতিকদের অনুশীলনের কথা ছিল পাশের মওলানা ভাসানী স্টেডিয়ামে। ২৪ নভেম্বরের আগে সেখানে সুযোগ না থাকায় টঙ্গীর ‘আহসানউল্লাহ মাস্টার স্টেডিয়ামে’ অনুশীলন করছে স্বাগতিক বাংলাদেশ।এরইমধ্যে ঢাকায় চলে আসা কুয়েত-মঙ্গোলিয়া ও শ্রীলঙ্কার তীরন্দাজ দলও টঙ্গীতে অনুশীলন করছে পর্যাপ্ত নিরাপত্তার মধ্যেই। তবে আশার কথা, আর্চারির জন্য আলাদা একাডেমি মাঠের পরিকল্পনা করছে ফেডারেশন।১ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলা এই টুর্নামেন্টের পরই হবে ইয়ুথ অলিম্পিকের বাছাই। সেখানে বাংলাদেশ থেকে অংশ নেবে ৬ জন। আর্চারির জন্য সুখবর হচ্ছে ৩ বছরের স্কলারশিপ পেয়ে সুইজারল্যান্ডে যাচ্ছেন সম্প্রতি কিরগিজিস্তানে স্বর্ণজয়ী বাংলাদেশি আর্চার রোমান সানা।