tisi

তিসির লাড্ডুর নাম শুনেছেন অনেকেই, তাই না! তিসির তেলের গুণ বলে শেষ করা যাবে না। তিসি বীজ ফাইবার, ওমেগা থ্রি ও ওমেগা সিক্স ফ্যাটি অ্যাসিডের প্রধান উৎস।

ব্লাড প্রেশার থেকে সুগার, ডায়াবেটিস থেকে ক্যানসার, সব রোগের মহৌষধ তিসি। এক চামচ তিসিবীজে প্রচুর প্রোটিন। তিসি খান, তাহলেই হাজারো রোগ গায়েব। এবার আসুন জেনে নেয়া যাক তিসির আর গুণের কথা-

১) তিসির স্বাস্থ্যকর ফ্যাট ও আঁশ অনেকক্ষণ পেট ভরে রাখে। ফলে, কম খাবার খেলেও চলে। ওজন কমাতে প্রতিদিনের খাবার তালিকায় স্যুপ, স্যালাদ ও যে কোনও পানীয়ের সঙ্গে কয়েক চা চামচ তিসিবীজ খাওয়া যেতে পারে।

২) তিসিবীজ রক্তে চিনির মাত্রা কমায়। ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখে। দৈনিক ১৫-২০ গ্রাম তিসি খেলে ডায়াবেটিস হওয়ার ঝুঁকি কমে।

৩) শরীরের দূষিত পদার্থ বের করে দেয় তিসি। অতিরিক্ত মেদ কমায়। কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে মুক্তি পেতে ১-৩ টেবিল চামচ তিসির তেল ১ কাপ গাজরের রসের সঙ্গে নিয়মিত খেলে উপকার পাওয়া যায়। গ্যাস্ট্রিক ও আলসারে উপকার পাওয়া যায়।

৪) গবেষকদের দাবি, শরীরে ভাল কোলেস্টেরল বাড়ায় এবং খারাপ কোলেস্টেরল কমায় তিসিবীজ।

৫) তিসিতে রয়েছে প্রচুর ফাইটোঅ্যাস্ট্রোজেনিক লিগ্লান্স। এটা শরীরে ক্যানসারের কোষ গঠনে বাধা দেয়। স্তন, প্রস্টেট, ওভারিয়ান ও কোলন ক্যানসার প্রতিরোধ করে।

৬) তিসিবীজে রয়েছে আলফা লিনোলিক অ্যাসিড। এটা হৃদরোগ প্রতিরোধ করে।

৭) প্রতিদিন লাঞ্চের পর অল্প একটু তিসি চিবোলে তামাক বা অন্য নেশা থেকে মুক্তি পাওয়া যেতে পারে বলে দাবি গবেষকদের।

৮) প্রতিদিন ১ চামচ তিসি গুঁড়ো। চুল পড়া কমায়। স্কিন ও নখকে স্বাস্থ্যবান করে।