image-48639-1505356969

বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেতা ঋষি কাপূরের টুইটের খোঁচা খাননি এমন সেলিব্রেটি বোধহয় তার আশেপাশে কমই আছে। সেই তালিকায় যোগ হলো এবার আরেকটি নাম। তবে তিনি কোনো ফিল্ম অভিনেতা নন। তিনি ভারতের অন্যতম রাজনৈতিক দল কংগ্রেস দলের সভাপতি সোনিয়া গান্ধীপুত্র রাহুল গান্ধী।

মঙ্গলবার বার্কলেতে ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে বক্তৃতা দিতে গিয়ে সেখানে বলিউডের পরিবার তন্ত্র নিয়ে কথা বলেন কংগ্রেসের সহ-সভাপতি রাহুল গান্ধী। তিনি বলেন ‘সারা ভারতে সর্বক্ষেত্রে পরিবারতন্ত্রের দাপট। রাজনীতি থেকে ব্যবসা,  এমনকী বলিউড— সব জায়গাতেই পরিবারতন্ত্রের দাপট রয়েছে।’এ প্রসঙ্গে রাহুল অখিলেশ যাদব, স্ট্যালিন(ডিএমকে) থেকে বলিউডের অভিষেক বচ্চনসহ ব্যবসায়ী মুকেশ আম্বানিদেরও ছাড়েননি।

ব্যস! আর যাবেন কোথায়! পরিবারতন্ত্র প্রসঙ্গে বলিউডকে জড়ানোতেই বেজায় চটে গেছেন ঋষি। একাধিক টুইট করে তার যথাযথ জবাব দিয়েছেন সিনিয়র এ অভিনেতা। লিখেছেন, ‘কাপূর খানদান বলিউডে পরিবারতন্ত্রের অন্যতম সফল উদাহরণ। কারণ, এই বংশের প্রজন্মের পর প্রজন্ম নিজেদের কৃতিত্বে মানুষের সম্মান অর্জন করেছে।’’

এখানেই থামেননি ঋষি। লিখেছেন, ‘ভারতীয় সিনেমার বয়স ১০৬ বছর,  তার মধ্যে ৯০ বছর ধরে কাপূর খানদানের সদস্যরা এখানে দাপটের সঙ্গে কাজ করছেন। সবটাই নিজেদের গুণে।’’

অন্য আরেক টুইটে রাহুলকে খোঁচা মেরে তিনি লেখেন, ‘পরিবারতন্ত্রকে সামনে রেখে সকলকে বদনাম করার প্রবণতা সঠিক নয়। মানুষের সম্মান গুন্ডাগিরি বা জবরদস্তি করে পাওয়া যায় না।’ যদিও ঋষির ‘টুইটাস্ত্র’র খোঁচায় কংগ্রেস সহ-সভাপতি কতটা ব্যথা পেয়েছেন তা জানা যায়নি।